সোমবার , ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ || ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

লাকসাম প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার লাকসামে মাদক ব্যবসায়ী কামাল হোসেনের নেতৃত্বে চার পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর চালিয়েছে। এ ঘটনায় নারী ও শিশুসহ ১০ জন আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার রাতে উপজেলার কান্দিরপাড় ইউনিয়নের ভাকড্যা গ্রামে।

স্থানিয় ও অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, কামড্ডা ও ভাকড্যা গ্রামের দুই শিশুর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনা কে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার রাত প্রায় ৮টার দিকে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী কামাল হোসেনের নেতৃত্বে স্বপন, সজিব, মাসুদ, মোস্তফা, ইব্রাহীম, শামিম, রব, মোশারফ, পারভেজ, নাহিদ সহ ৫০/৬০ জন সন্ত্রাসী চাপাতি, রামদা, কিরিচ সহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র সজ্জিত হয়ে হামলা চালায়। হামলায় চার পরিবারের ৬টি ঘর ভাংচুর চালিয়ে স্বর্নালঙ্কার ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। তাদের হামলায় শেখ কাইয়ুম, খোকন, আলমগীর, রাজিব, পিংকি, মনি কুলছুম, কালাম, হোসনেয়ারা সহ প্রায় ১০জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে লাকসাম সরকারি হাসপাতলে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৪ জনকে কুমিল্লায় প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
আহত আবুল কালাম জানায় কামড্ডা গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী কামালের নেতৃত্বে বিভিন্ন অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে অনেক কে আহত করেছে। তারা আমাদের ঘরে ঢুকে গৃহবধুদের নাজেহাল করে স্বর্নালঙ্কার ও নগদ টাকা লুটে নেয়।

ওয়ার্ড মেম্বার জামাল হোসেন জানায়, এ হামলার ঘটনাটি অত্যান্ত দুঃখজনক। আমি অপরাধীদের শাস্তী দাবী করছি।

লাকসাম থানা পুলিশের ওসি নিজাম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।